শুরু করছি ছোটবেলার একটি গল্প দিয়ে। যখন ৫ম শ্রেনীতে পড়তাম তখন অভিভাবক ও শিক্ষক সবাই বলতেন,”ভালভাবে পড়, বৃত্তি পেতে হবে। আর হাইস্কুলে যাওয়ার জন্য ফাউন্ডেশন ভাল হতে হবে।” মনোযোগ দিয়ে পড়ালেখা করলাম, ফাউন্ডেশনও ভাল হল, বৃত্তিও পেলাম।

গেলাম হাইস্কুলে, ক্লাস সিক্স, তখনও আবার সবাই বলতে লাগলেন, ভালভাবে পড়, হাইস্কুলের প্রথম থাপ। চেষ্টা করলাম ভালভাবে পড়তে, ১ম পরীক্ষায় ই ফার্স্ট হয়ে গেলাম, যা পুরু হাইস্কুল লাইফেই ছিল। যখন ৮ম শ্রেনীতে উঠলাম আবারও সেই উপদেশ, ”ভালভাবে পড়, বৃত্তি পেতে হবে।“ ভালভাবে পড়লাম, কিন্তু বৃত্তি পেলাম না ;)

এস, এস, সি, তেও একই উপদেশ, খুব ভাল রেজাল্ট পেলাম আল্লাহর মেহেরবানীতে।
এভাবে এইচ, এস, সি, গ্রাজুয়েশন ও পরবর্তি প্রতিটি ধাপকেই গুরুত্বপুর্ন শুনে এসেছি।

 

তেমনি নিশ সাইটের সফলতার জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ থেকে শুরু করে র‍্যাঙ্ক করা পর্যন্ত প্রতিটি ধাপই অনেক গুরুত্ব বহন করে। প্রোডাক্ট রিসার্চ তেমনি একটি গুরুত্বপুর্ন বিষয়। অনেকেই কিছুটা দ্বীধা-দ্বন্দে ভুগেন এটা নিয়ে।

 

আমি যেভাবে পোডাক্ট রিসার্চ করি এখানে সেগুলো তুলে ধরার চেষ্টা করব। আমাদের কমিউনিটিতে আরও অনেক অভিজ্ঞ এবং সফল মার্কেটার আছেন। তাঁদেরকেও ফলো করতে পারেন। চলুন শুরু করি।

১. বেস্ট সেলার

best seller

শুরুতেই আমার নিশ অনুযায়ী বেষ্ট সেলার পণ্য গুলো খোজার চেস্টা করি। যদি না পাই তাহলে অন্যান্য বিষয় গুলো দেখি। সব নিশে খুব বেশি বেস্টসেলার পাওয়া যায় না।

২. প্রোডাক্ট প্রাইস

price

আমি সাধারণত নিশভেদে ৫০ ডলার থেকে প্রোডাক্ট নির্বাচন করা শুরু করি। নিশভেদে এইজন্য বললাম, এমন কিছু নিশ পাবেন ১০০ ডলারের নিম্নে কোন পন্যই নেই। আবার আপনার কিওয়ার্ড যদি প্রাইস ট্যাগ রিলেটেড হয় তাহলে তো কথা ই নেই ।

৩. রেটিং

rating

আমি সাধারণত ৪+ রেটিং পণ্য গুলো নির্বাচন করি। অনেকে ৩+ এর কথা বলেন, কিন্ত যেহেতু এমাজনে পন্যের অভাব নেই তাই ৪ এর বেশি নিতে ক্ষতি কি :-D

৪. কাস্টমার রিভিউ

review

কাস্টমার রিভিউ ৫০+ নিই আমি। কিছু কিছু নিশে ৫০ পেতে কষ্ট হয়। হান্টিং নিশের কিছু প্রোডাক্ট রিসার্চ করতে গিয়ে এই সমস্যা ফেইস করেছি। সর্বশেষ ৩ থেকে ৪ টি রিভিউ দেখি, কাস্টমার পজিটিভ না নেগেটিভ রিভিউ দিলেন। যদি বেশি নেগেটিভ পাই তাহলে এভয়েড করি। লেটেস্ট রিভিউগুলোর তারিখও দেখি, এটা দেখলে বুঝা যাবে, রিসেন্টলি প্রোডাক্ট সেল হয়েছে কিনা।

৫. কনটেন্ট ডেভেলপমেন্ট স্কোপ 

এমাজনে প্রত্যেক প্রোডাক্টের বিবরণ দেওয়া থাকে। কিছু পণ্যের অনেক বিস্তারিত বিবরণ লেখা থাকে, আবার কিছু পণ্যের নামমাত্র কিছু বিবরণ দেওয়া থাকে। যে পণ্যের বিশদ বিবরণ দেওয়া থাকে সেটা নিয়ে কনটেন্ট লিখতে রাইটার রা খুব স্বাচ্ছন্দ বোধ করেন এবং খুব ভাল লিখতে পারেন। এমাজনে পণ্যের খুব বেশি বর্ননা না থাকলে থার্ড পার্টি ইনফরমেশন থেকে খুব ভাল কনটেন্ট লেখা যায় না।  এ বিষয় টি খুব ভালভাবে মাথায় রাখি।

৬. ফ্রী শিপিং

ফ্রী শিপিং এর পণ্য কিনতে সবাই স্বাচ্ছন্দ বোধ করে। সুতরাং এটা পণ্য নির্বাচনের একটা কমন বিষয়।

৭. ফ্রী রিটার্ণ

এমাজন যেহেতু কাস্টমার সেটিসফাইড না হলে পণ্য রিটার্ন করে সেহেতু অনেক সেলারই রিটার্নও ফ্রী নিয়ে থাকে। এটাও বিবেচনায় রাখা যায়। যদিও খুব কম পণ্যে এই সুবিধা পাওয়া যাবে।

৮. সাইকোলজিক্যাল প্রাইস

সাইকোলজিক্যাল প্রাইস একটি গুরুত্বপুর্ন বিষয় ক্রেতা আকর্ষনের জন্য। যেমন অনেক পণ্যের দাম দেখা যায় ৫৯৯৯, ৬৯৯৯ টাকা। আমাদের দেশে মোবাইল কোম্পানি ও অন্যান্য ইলেকট্রনিক্স কোম্পানি সাধারণত এই ধরনের দাম অফার করে। এমাজনে দেখা যাবে অনেক পণ্যের দাম ১৯৯, ২৯৯, ৩৯৯ ডলার। এই ধরনের পণ্য গুলো বাছাই করা যেতে পারে।

৯. সেলার

এখানে প্রথমেই গুরুত্ব দেই পণ্যটি এমাজন ডিরেক্ট সেল করছে কিনা। এরকম হলে ভাল। এমাজনে অনেক অনেক থার্ড পার্টি সেলার আছে, তাই এমাজনকেই একটু প্রাধান্য দেই।

১০. ব্র্যান্ডঃ 

এমাজনে অনেক নামীদামী বিখ্যাত ব্র্যান্ডের পন্য পাওয়া যায়। যে সব ব্র্যান্ড এর ভাল ধারণা ইতোমধ্যে কাস্টমারদের আছে। ব্র্যান্ডকেও বিবেচনায় রাখতে হবে। অনেক ব্র্যান্ডের খুব ভাল সার্চ ভলিউম আছে। কিছু কিছু ব্যান্ডের নির্দিস্ট মডেলেরও ভাল সার্চ ভলিউম আছে।

১১. পণ্য এভেইলেবল কিনা

অনেক পণ্যই দেখা যায়, ৪টা, ৫টা বা নির্দিস্ট একটা এমাউন্ট এভেইলেবল দেওয়া থাকে। এক্ষেত্রে এজাতীয় পণ্য গুলো এভয়েড করি, যেহেতু অনেক পণ্য আছে বাছাই করার জন্য।

এগুলো একান্তই আমার নিজস্ব মতামত যেগুলো আমি ফলো করি। আরও এক্সপার্ট যারা আছেন তাঁদেরকেও ফলো করতে পারেন। আর এই মেথড গুলি আমি শিখেছি আমার SEO এবং Amazon Affiliate Marketing এর শিক্ষক আবু তাহের সুমন  ভাই থেকে। আল্লাহ তাঁদেরকে যাজায়ে খায়ের দান করুন।

কষ্ট করে আমার এই লেখা পড়ার জন্য অনেক অনেক কৃতজ্ঞতা। আপনার সামান্য উপকার হলেও আমার ভাল লাগবে।

ধন্যবাদ। আল্লাহ আমাদের ব্যবসায় বারাকাহ দান করুন- আমীন

আমাদের ব্লগে ঘুরে আসতে পারেন। আশাকরি কাজে লাগবে।